অশ্লীল অবস্থায় ভিডিও ধারণ করায় গ্রেপ্তার করা হল পুনম পান্ডেকে।অশ্লীল অবস্থায় ভিডিও ধারণ করায় গ্রেপ্তার করা হল পুনম পান্ডেকে। – দৈনিক গণ আওযাজ
শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০১:২৮ পূর্বাহ্ন

অশ্লীল অবস্থায় ভিডিও ধারণ করায় গ্রেপ্তার করা হল পুনম পান্ডেকে।

ডিজিএ বিনোদন ডেস্ক/২৭বার পড়া হয়েছে
আপডেট :শুক্রবার, ৬ নভেম্বর, ২০২০

সবসময়ই আলোচনার শীর্ষে থাকেন পুনম পাণ্ডে। করোনা পরিস্থিতির মাঝে বিয়ে করেও আলোচনায় ছিলেন তিনি। এবার ফের অভিযোগের মুখে সেই পুনম। গ্রেপ্তার করা হল পুনম পান্ডেকে।

গোয়ায় অশ্লীল অবস্থায় সৈকতে ভিডিও ধারণ করার সময় পুলিশের হাতে আটক হলেন ২৯ বছর বয়সী এই তারকা। সমুদ্রসৈকত এলাকা ও সংরক্ষিত বাঁধে অশালীন অবস্থায় ভিডিও ধারণের জন্য পুনমের বিরুদ্ধে গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টিং মহিলা শাখার পক্ষ থেকে কানাকোনা থানায় এফআইআর দায়ের করে।

 

বৃহস্পতিবার এই অভিনেত্রীকে আটক করেছে গোয়া পুলিশ। পিটিআইকে এ খবর নিশ্চিত করেছেন গোয়ার এসপি (দক্ষিণ) পঙ্কজ কুমার সিং। এছাড়াও একজন ব্যক্তি পুনমের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। যদিও তাঁর নাম জানা যায়নি বলেই জানিয়েছেন কানাকোনা থানার পুলিশ।

 

গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টির সহ-সভাপতি দুর্গাদাস কামাতের অভিযোগ, চাপোলি ড্যামে অশ্লীল ভিডিও শুট করেছেন পুনম। আসলে ওই জায়গাটি জলসম্পদ দপ্তরের নিয়ন্ত্রণাধীন। এন্টারটেনমেন্ট সোসাইটি অফ গোয়ায় মূলত এখানে শুটিংয়ের অনুমতি দিয়ে থাকে। তাই কীভাবে ওই জায়গায় এমন অশ্লীল শুটিং করার অনুমতি দেওয়া হল সেই প্রশ্নও করেন ফরওয়ার্ড পার্টির সহ-সভাপতি।

 

গোয়া ফরোয়ার্ড দলের পক্ষে দুর্গাদাস কামাত এ বিতর্কের জেরে গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত ও পানিসম্পদ মন্ত্রী ফিলিপ নেরি রদ্রিগেজের পদত্যাগ দাবি করেছেন। কানাকোনা বহু বাসিন্দা প্রশ্ন তুলেছিলেন, পুলিশ কীভাবে এ ধরনের ভিডিও ধারণের অনুমতি দিল।

কিছুদিন আগেই বিয়ে হয় পুনমের। বিয়ের পর হানিমুনে যান তিনি। এরপরই স্বামীর বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ আনেন তিনি।

 

বিয়ের পর একসঙ্গে গোয়ায় গিয়েছিলেন তাঁরা। এরপরই কয়েকদিন আগেই পুনম তাঁর স্বামীকে পুলিশে দেন। সাক্ষাৎকারে পুনম জানান, প্রায় দেড় বছর ধরে স্যাম বম্বের সঙ্গে সম্পর্কে রয়েছেন তিনি। শুরু থেকেই অত্যাচার করতেন স্যাম।

বিয়ে করলে সমস্ত কিছু ঠিক হয়ে যাবে। এমনটা ভেবেই সেপ্টেম্বরের ১১ তারিখ বিয়ে করেছিলেন পুনম। কিন্তু পরিস্থিতি আরও খারাপ হয় গোয়ায় মধুচন্দ্রিমায় যাওয়ার পর। ২৩ সেপ্টেম্বর রাতে অত্যাচার চরমে পৌঁছায়। হোটেলের ঘর থেকে চিৎকার-চেঁচামেচির শব্দ শুনে কর্মীরাই গোয়া পুলিশকে খবর দিয়েছিলেন। স্যাম নাকি নৃশংসভাবে তাঁকে মারধর করছিলেন।

ডিজিএ/এমডিজেএম


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো খবর