যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ।যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ। – দৈনিক গণ আওযাজ
রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৮:১৫ পূর্বাহ্ন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ।

গণ আওয়াজ ডেস্ক/২৯বার পড়া হয়েছে
আপডেট :মঙ্গলবার, ৩ নভেম্বর, ২০২০

বহুল প্রতীক্ষিত যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ। এই একটি নির্বাচন যে নির্বাচনের ফলাফলের দিকে তাকিয়ে আছে গোটা বিশ্ব। বৈশ্বিক চালিকাশক্তির অনেক কিছু নির্ভর করছে এই নির্বাচনের ওপর। নিউ ইয়র্ক টাইমস, ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল, এএফপি ও দ্য গার্ডিয়ানের মতো আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো এবারের নির্বাচনকে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন হিসেবে অভিহিত করেছে। গতকাল শেষ মুহূর্তের প্রচারে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প নর্থ ক্যারোলিনা, পেনসিলভানিয়া, উইসকনসিন ও মিশিগানে প্রচার চালান। আর ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন পেনসিলভানিয়া ও ওহাইওতে সমর্থকদের সামনে হাজির হয়েছিলেন।

উভয় প্রার্থীই গতকাল শেষ মুহূর্তে পেনসিলভানিয়ায় প্রচার চালান। বিশ্লেষকদের মতে, সুইং স্টেটগুলোর মধ্যে এবার পেনসিলভানিয়াই হতে পারে কে হবেন প্রেসিডেন্ট তার নির্ধারক। মিশিগান ও উইসকনসিনে গতবার অল্প ব্যবধানে ট্রাম্প জিতলেও এবার পরিস্থিতি পাল্টে যেতে পারে। কারণ, গত নির্বাচনে ভোটের কিছুদিন আগেই হিলারির ই-মেইল কেলেঙ্কারির ঘটনা ফাঁস হওয়ায় ডেমোক্র্যাট শিবিরের জন্য বড় ধাক্কা হয়ে দাঁড়িয়েছিল। কিন্তু এবার ডেমোক্র্যাট প্রার্থী বাইডেনের ক্ষেত্রে তেমন কোনো ঘটনা ঘটেনি।

রিয়েলক্লিয়ারপলিটিকসের জরিপ অনুসারে পেনসিলভানিয়াতে ট্রাম্পের তুলনায় সামান্য এগিয়ে বাইডেন। গড়ে এই এগিয়ে থাকার অনুপাত ৪ দশমিক ৩ পয়েন্ট। গতকাল পেনসিলভানিয়াতে সমর্থকদের সামনে বাইডেনকে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের সবচেয়ে ‘বিধ্বংসী’ প্রেসিডেন্টকে সরিয়ে গণতন্ত্রের ধারা ঠিক করার প্রতিশ্রুতি দিতে দেখা যায়। বাইডেনের সমাবেশে গতকাল বৃষ্টিস্নাত পরিস্থিতি উপেক্ষা করেও বহু মানুষকে যোগ দিতে দেখা যায়। সবচেয়ে বড় ব্যাপার বাইডেন সোমবার পেনসিলভানিয়ার বেশ কয়েকটি ভোটকেন্দ্রে যান সাংবাদিকদের সঙ্গে নিয়ে যেখানে ইতিমধ্যেই আগাম ভোট নেওয়া হচ্ছিল। বাইডেনের প্রায় প্রতি মিনিটের কর্মকান্ডই প্রচারের শীর্ষে রাখেন সাংবাদিকরা।

চার বছর আগে পেনসিলভানিয়াতে মাত্র ৪৪ হাজার ভোটে জিতেছিলেন ট্রাম্প। অথচ ওই সুইং স্টেটের জনসংখ্যা ১ কোটি ৩০ লাখের ওপর। এবার রাজ্যটিতে ভোটারের সংখ্যাও আগের তুলনায় বেশি। দেশের সর্বত্রই যে হারে ভোট দিচ্ছে মানুষ, তা যদি পেনসিলভানিয়াতেও অব্যাহত থাকে, তাহলে সর্বোচ্চসংখ্যক ভোট কোন শিবিরে পড়ে তাই এখন দেখার বিষয়।

ট্রাম্প পেনসিলভানিয়াতে প্রচারের উদ্দেশ্যে কম সময় দিলেও সেই ভুলটা করেননি বাইডেন। আজ নির্বাচনের রাতেও তিনি পেনসিলভানিয়াতেই কাটাবেন বলে জানিয়েছে ডেমোক্র্যাট ক্যাম্পেইন কর্র্তৃপক্ষ। রাতে পপস্টার লেডি গাগার আয়োজনে ড্রাইভ ইন র‌্যালিতে পিটসবার্গে যোগ দেবেন বাইডেন। হয়তো এই অনুষ্ঠান থেকেই বিজয়োল্লাস করতে পারেন তিনি।

পেনসিলভানিয়ায় প্রতিবেশী রাজ্য ওহাইওতেও প্রচার চালান বাইডেন। এক সময় এই রাজ্যকে ট্রাম্পের পক্ষের বলে বিবেচনা করা হতো, এখানে ২০১৬ সালে জয় পেয়েছিলেন তিনি, কিন্তু এবারের জরিপে এখানে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বলে আভাস পাওয়া গেছে। ট্রাম্পের অর্থনৈতিক নীতিমালার কারণে এই রাজ্যের মানুষ গত চার বছরে অসুবিধাজনক অবস্থায় ছিলেন বলে জানাচ্ছে সংবাদপত্রগুলো।

আলোকচিত্রী জোসেফ গিডজুনস উভয় প্রার্থীকেই পেনসিলভানিয়াতে কাছ থেকে প্রত্যক্ষ করেছেন। তিনি এএফপিকে জানান, প্রচারের দিক দিয়ে এই রাজ্যে ট্রাম্পের উপস্থিতি ছিল অনেক মাস্তানসুলভ।

ডিজিএ/এমডিজেএম


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো খবর