প্রাথমিক বিদ্যালয় নভেম্বরে খুলতে পারেপ্রাথমিক বিদ্যালয় নভেম্বরে খুলতে পারে – দৈনিক গণ আওযাজ
বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:২০ অপরাহ্ন

প্রাথমিক বিদ্যালয় নভেম্বরে খুলতে পারে

গণ আওয়াজ ডেস্ক/৩৩বার পড়া হয়েছে
আপডেট :শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

প্রাথমিক বিদ্যালয় নভেম্বরের শুরুতে খুলতে পারে ধরে নিয়ে পাঠ পরিকল্পনা সাজিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা প্রশাসন। এদিন থেকে ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৩৯ দিন শুধু পঞ্চম শ্রেণির শ্রেণি কার্যক্রমের পরিকল্পনা নিয়েছে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমি (ন্যাপ)।

শিক্ষা প্রশাসনের একাধিক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা আমাদের সময়কে জানান, করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না শিক্ষা প্রশাসন। এক সময় সেপ্টেম্বরে খোলার ভাবনা থাকলেও করোনা পরিস্থিতি প্রায় অপরিবর্তিত থাকায় স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে। অক্টোবরেও খোলার সম্ভাবনা ক্ষীণ বলে মনে করেন তারা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কোন মাসে খুললে কতদিন সময় পাওয়া যাবে এর ভিত্তিতে একের পর এক পাঠ পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এর কোনোটা আদৌ বাস্তবায়ন করা যাবে কিনা তা সময়ের ওপর নির্ভর করছে।

জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমি (ন্যাপ) ১ নভেম্বর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার লক্ষ্য ধরে পঞ্চম শ্রেণির জন্য ৩৯ দিনের সিলেবাস চূড়ান্ত করেছে। ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত ক্লাস নেওয়া গেলে ৩৯ দিন পড়ানো যাবে বলে মনে করেন ন্যাপ কর্মকর্তারা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আকরাম-আল-হোসেন বলেন, এই পাঠ পরিকল্পনাও বাস্তবায়ন করা না গেলে শ্রেণি মূল্যায়নেরও সুযোগ থাকবে না। ফলে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের অটো পাসের দিকেই যেতে হবে। একই সঙ্গে অন্যান্য শ্রেণিতেও অটো প্রমোশনের সিদ্ধান্তে যেতে হবে।

তিনি বলেন, অক্টোবর ও নভেম্বরকে টার্গেট করে দুটি লেসন প্ল্যান তৈরি করেছি। পরিস্থিতি বিবেচনা করে নভেম্বর থেকে সংক্ষিপ্ত পাঠ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে। অক্টোবরে খোলার বিষয়ে এখনো কোনো নির্দেশনা নেই। পরিস্থিতি উন্নতি হলে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আর যদি নভেম্বরেও স্কুল খোলা না যায় তা হলে প্রধানমন্ত্রী যেটি বলেছেন, আমাদের অটো পাস ছাড়া উপায় নেই।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার বা ছুটি বাড়ানোর বিষয়টি নির্ভর করছে সরকারি সিদ্ধান্তের ওপর। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গঠিত ‘জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটি’ অক্টোবরে খোলার বিষয়ে কোনো নির্দেশনা দিতে পারেনি।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, করোনায় আক্রান্তের হার যেভাবে কমছে তাতে নভেম্বরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা যেতেও পারে। অক্টোবরের মাঝামাঝি যদি করোনায় আক্রান্তের হার একেবারেই কমে যায় তা হলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলতে ১৫ দিনের প্রস্তুতি নিতে হবে। এ বছর প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) ও এবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা না নেওয়ার ঘোষণা আগেই দেওয়া হয়েছে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১৭ মার্চ থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত বন্ধ। এতে ৭১ কার্যদিবস বিদ্যালয় বন্ধ থাকবে। এ কারণে পঞ্চম শ্রেণির ৪০৬টি স্বাভাবিক পাঠদান সম্ভব হবে না। ১৭ মার্চ পর্যন্ত আগের সময়ে ৩০ থেকে ৩৫ শতাংশ পাঠদান সম্পন্ন হয়েছে।

ডিজিএ/এমডিজেএম


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো খবর