ব্লু ফিল্মের তারকা রন জেরেমির বিরুদ্ধে অভিযোগব্লু ফিল্মের তারকা রন জেরেমির বিরুদ্ধে অভিযোগ – দৈনিক গণ আওযাজ
শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৯:৩৮ পূর্বাহ্ন

ব্লু ফিল্মের তারকা রন জেরেমির বিরুদ্ধে অভিযোগ

গণ আওয়াজ অনলাইন ডেস্ক/২৫০বার পড়া হয়েছে
আপডেট :মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

গণ আওয়াজ ডেস্কঃ ব্লু ফিল্ম হিসেবে পরিচিত প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য নির্মিত ছবির তারকা রন জেরেমির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে যে, তিনি তেরজন নারীর ওপর যৌন সহিংসতা চালিয়েছেন, যাদের মধ্যে তের বছরের এক কিশোরীও রয়েছে। লস অ্যাঞ্জেলসের সরকারি আইনজীবীরা এই তথ্য জানিয়েছেন।

আইনজীবীরা বলছেন, এই যৌন সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে ২০০৪ সালের দিকে।

৬৭ বছরের এই পর্ন তারকার বিরুদ্ধে এর আগেই ২০১৪ সাল থেকে ২০১৯ সালের মধ্যে চারজন নারীকে ধর্ষণ অথবা হামলার অভিযোগ রয়েছে।

পর্নোগ্রাফির জগতে রন জেরেমি খুব বড় একটি নাম, যিনি চার দশক জুড়ে ১৭০০’র বেশি প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য নির্মিত ছবিতে অভিনয় করেছেন।

অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার ২৫০ বছর পর্যন্ত সাজা হতে পারে। তবে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

রন জেরেমির আসল নাম রোনাল্ড জেরেমি হায়াত। তাকে গত জুন মাসে আদালতে হাজির করা হয়।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছিল যে, তিনি ২৫ ও ৩০ বছর বয়সী দুইজন নারীকে ধর্ষণ করেছেন। এছাড়া আরও ৩৩ ও ৪৬ বছরের আরও দুজন নারীর ওপর হামলা করেছেন।

সেই সময় এসব অভিযোগ নাকচ করে তার আইনজীবী বলেছিলেন যে, তার মক্কেল ‘চার হাজারের বেশি নারীর উপপতি’ এবং ‘নারীরাই তার প্রতি নিজেকে বিলিয়ে দেয়’।

তবে লস অ্যাঞ্জেলস টাইমস জানিয়েছে, তাকে আদালতে হাজির করার পরবর্তী কয়েক দিনে তার বিরুদ্ধে যৌন সহিংসতার আরও কিছু অভিযোগ পেয়েছেন আইনজীবীরা।

নতুন অভিযোগের মধ্যে রয়েছে ১৩ জন নারীর ওপর অন্তত ২০ বার ধর্ষণ এবং যৌন হামলার মতো অভিযোগ। ভুক্তভোগীদের বয়স হবে ১৫ থেকে ৫৪ বছর।

রন জেরেমির আসল নাম রোনাল্ড জেরেমি হায়াত। তাকে গত জুন মাসে আদালতে হাজির করা হয়।

সর্বশেষ যৌন হামলার ঘটনা ঘটেছে এই বছর নববর্ষের দিনে হলিউডের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে।

২০১৭ সালে রোলিং স্টোন ম্যাগাজিন প্রতিবেদন প্রকাশ করে যে, মি. জেরেমির বিরুদ্ধে অনেক নারী যৌন অসদাচরণের অভিযোগ এনেছেন, যার মধ্যে রয়েছে আপত্তিকর স্পর্শ, ডিজিটাল মাধ্যমে যৌন হয়রানি এবং যৌন হামলা।

তবে ম্যাগাজিনকে তিনি বলেছিলেন যে, ‘তিনি কখনোই কাউকে ধর্ষণ করেননি।’

সবচেয়ে বেশি পর্নোগ্রাফিতে অভিনয় করার জন্য গিনেজ বুকের রেকর্ডে নাম উঠেছে মি. জেরেমির। ২০০১ সালে তাকে নিয়ে একটি তথ্যচিত্রও তৈরি করা হয়।

বেশ কিছু কম্পিউটার গেম, হলিউডের সিনেমা এবং মিউজিক ভিডিওতেও তিনি অভিনয় করেছেন।

 

 



বাংলাদেশ সময়ঃ ১১ঃ০৫ এ.এম. সেপ্টেম্বর ০১,২০০



 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো খবর