আতিকুর রহমান আতিকসহ তার সহযোগীদের ধরিয়ে দেনআতিকুর রহমান আতিকসহ তার সহযোগীদের ধরিয়ে দেন – দৈনিক গণ আওযাজ
রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন

আতিকুর রহমান আতিকসহ তার সহযোগীদের ধরিয়ে দেন

গণ আওয়াজ ডেস্ক/৩৩১বার পড়া হয়েছে
আপডেট :সোমবার, ৩১ আগস্ট, ২০২০

বিএনপির তারেক রহমান,মির্জা ফখরুল ইসলাম,মিজানুর রহমান মিনু,চট্রগ্রামের মানবতা বিরোধী অপরাধে দন্ডিত সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ভাই গিয়াসউদ্দিন কাদের চৌধুরীদের বিরুদ্ধে পৃথক তিনটি মামলার বাদি,বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক মোঃ আকরাম হোসেন বাদলের পক্ষে সত্য রিপোর্ট করায় ডাকসু ভিপির সহযোগী একাধীক মামলার গ্রেফতারি পরোয়ানায় পলতাক, আতিকুর রহমানসহ তার অনুসারিরা বিভিন্ন সাংবাদিককে হত্যার হুমকি দিচ্ছে এবং বিভিন্ন অপপ্রচার করছে।। তার দেওয়া হুমকি ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইমে মামলা ও বিভিন্ন থানায় জিডি দায়ের করা সম্পর্ণ।

প্রসঙ্গতঃ গত মে ২৯,২০১৮ মানবতা বিরোধী অপরাধে দন্ডিত সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ছোট ভাই বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী চট্রগ্রাম ফটিকছড়ি থানাধীন প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মৃত্যু বার্ষিকীতে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য দেন।বক্তব্যে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, শেখ মুজিবের মৃত্যুর পর বাংলাদেশে কেউ ইন্না লিল্লাহ পড়ে নাই। আপনার মৃত্যু আপনার বাবার চেয়েও মর্মান্তিক হবে আপনি প্রস্তুুতি নিয়ে রাখুন, সেই রহস্যময় বক্তব্যের বিরুদ্ধে চট্রগ্রাম আদালতে মোঃ আকরাম হোসেন বাদল বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন যাহার নং-১৪৫/২০১৮। তারপর চকবাজার, বনানী অগ্নিকান্ড উল্লেখ করে গত এপ্রিল ০১,২০১৯ জাতীয় প্রেসক্লাবের সম্মুখ্যে, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের উপস্থিতিতে তাদের শরিক দলের একাংশ প্রধান ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুর তার বক্তব্যে বলেন,, দেশে আগুন জ্বলছে পূণরায় জাতীয় নির্বাচন না দিলে বাংলাদেশের জায়গায় জায়গায় আগুল জ্বলবে এবং এপ্রিল ০৪,২০১৯ বিএনপির উপদেষ্টা রাজশাহীর দলীয় কার্যালয়ের সামনে তার বক্তব্যে বলেন , ৩০ সেকেন্ডে সরকার পতন ঘটাবেন দেশ ষড়যন্ত্রমূলক এইসব বক্তব্য দেয়ার পর পরই দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিনিয়তই আগুন জ্বলতে শুরু করলো এবং ধর্ষণ খুন বলাৎকার শুরু হলো দেশে যখন অরাজকতার লক্ষণ দেখা দিলো ঠিক তখনই মোঃ আকরাম হোসেন বাদল মির্জা ফখরুলসহ চারজনকে আসামী করে কিশোরগন্জ আদালতে একটি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা দায়ের করেন এবং বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্টা বার্ষিকী উপলক্ষে যুক্তরাজ্য শাখা বিএনপির সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের আয়োজিত অনুষ্টানে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান তার প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতির পিতার নামকরন করে বলেন , শেখ মুজিব স্বাধীনতা ঘোষনা করেনি এমনি কি তিনি স্বাধীনতা চাননি। তখন বাংলাদেশের সকল নেতৃবৃন্দরা ফেইসবুকে প্রতিবাদ করলেও মোঃ আকরাম হোসেন বাদল নারায়নগঞ্জ আদালতে তারেক রহমানসহ তিনজনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করলে, উক্ত আদালত আসামীগনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন, উক্ত মামলাগুলো আমলে নেয়ার সাথে সাথে দেশের সকল মিডিয়া, পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত হয়ে দেশ বিদেশে আলোচনা সমালোচনার সৃষ্টি হয় অনেক সাংবাদিকগণ মোঃ আকরাম হোসেন বাদল সম্পর্কে জানতে যেমন স্বরজমিনে খোঁজ নিয়েছেন তেমনি আমাদের বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ সংগঠনের সাংবাদিকগণ খোঁজখবর নিয়ে তার জীবন যাপন কর্মকান্ড সম্পর্কে জানতে পেরে তার সততা আর নিষ্টার কথাগুলো বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ সংগঠন থেকে অনলাইন পোর্টাল, অনলাইন মিডিয়া,ফেইসবুক ব্যবহারকারীগন যার যার অবস্থান থেকে লিখতে থাকে তারপর থেকেই ডাকসুর ভিপির সহযোগী আতিকুর রহমান আতিক, খন্দকার জাকিয়া ইসলাম,রনি শেখ, সবুজ, আজিজ,স্বপন, বর্তমানে আল-আমিনের অর্থাৎ একাদিক স্বামীর স্ত্রী নাহিদা আক্তার তাছলিমা, সহ আরো অনেকেই উক্ত বাদি মোঃ আকরাম হোসেন বাদলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করে আসছে।বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ সংগঠনের সাংবাদিকগন উক্ত আতিকুর রহমান আতিকের দেওয়া তথ্যের সত্যতার সন্ধ্যান করতে গেলে আতিকুর রহমান আতিক ও তার সংঙ্গীদের সকল তথ্যই মিথ্যে এবং উক্ত আতিক ব্যক্তিদ্বয়ের সকল ষড়যন্ত্র বিএসকেএস এর কাছে ধরা পরে যায় এবং উক্ত আতিকুরের বিভিন্ন নারী কেলেংকারী,অপহরন, প্রতারনার মামলাও রয়েছে একাদিক, শুধু তা-ই নন, উক্ত আতিকুর রহমান চাকুরী দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে মেয়েদের বিনা কাবিনে ১০/১১ টি বিয়ে করে মেয়েদের জীবন নষ্ট করেছেন বিএসকেএস এইসব তথ্যের সন্ধান পাওয়ায় এবং অনেক নারী পুরুষদের কাছ থেকে ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুরুর কথা হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা আমরা সকল অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রচার প্রকাশনা করার পর থেকেই উক্ত প্রতারকগণের শুরু হয় বি.সকেএস’র বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হত্যার হুমকি, ফেইসবুকে মোঃ আকরাম হোসেন বাদল সহ আমাদের ছবি এডিট করে আপত্তিকর ছবি পোষ্ট, মিথ্যে অভিযোগ ইত্যাদি, যেহেতু আমরা সাংবাদিকগণ সত্য লিখার প্রত্যয়ে কলম ধরতে শিখেছি তাই কোন হুমকি আর ধমকিতে ভয় করি না তবে আমাদের পক্ষে নিরাপত্তার নির্মিত্তে আইনগত ব্যবস্থা নেয়াই একান্ত জরুরী তাই উক্ত আতিকুর রহমান আতিকের চক্রকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনী দ্রুতই গ্রেফতার করবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন আর সকল ভুক্তভোগীদের সঠিক তথ্য প্রমানাদি নিয়ে আমাদের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ করা গেলো,
বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ সংগঠন সত্যের পথেই সংগ্রাম করে যাচ্ছে এবং আপোষহীনতার সাথে ভবিষ্যতেও চালিয়ে যাবে।

 

 



বাংলাদেশ সময়ঃ ০১ঃ২৮ পি.এম. আগস্ট ৩১,২০২০



 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো খবর