বাঘায় বিতর্কিত জামাত নেতার ম্যানেজিং কমিটিতে সভাপতি হওয়ার অপচেষ্টাবাঘায় বিতর্কিত জামাত নেতার ম্যানেজিং কমিটিতে সভাপতি হওয়ার অপচেষ্টা – দৈনিক গণ আওযাজ
বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:২৭ অপরাহ্ন

বাঘায় বিতর্কিত জামাত নেতার ম্যানেজিং কমিটিতে সভাপতি হওয়ার অপচেষ্টা

অনলাইন রিপোর্টার/৯৮বার পড়া হয়েছে
আপডেট :শুক্রবার, ২৪ জুলাই, ২০২০

রাজশাহীর বাঘা উপজেলায় এক স্কুল পরিচালনা কমিটিতে সভাপতি পদে অধিষ্ঠিত হওয়ার লক্ষ্যে জামাত নেতার অপচেষ্টার খবর পাওয়া গেছে।

জানাযায়, বাঘা উপজেলার হরিরামপুর উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার পর থেকেই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহ আলম খোকন নতুন কমিটির জন্য রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে অ্যাঢোক কমিটি তৈরি করার জন্য আবেদন করলে শিক্ষা বোর্ড কমেটি তৈরি করার অনুমতি প্রদান করে।

এরপর অভিভাবক সদস্য গঠনের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে আবেদন করেন। উক্ত তালিকায় যোগ্য ব্যক্তির নাম না দিয়ে অল্প শিক্ষিত রেডিও মেকারের নামসহ আরো অনেকের নাম পাঠায় যা অত্যন্ত দুঃখজনক এখানে যোগ্য ব্যক্তি বঞ্চিত হওয়ার কারণে এলাকার লোকজন মানব বন্ধন পর্যন্ত করে।

গত কয়েকদিন পূর্বে অত্র বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের অভিভাবকবৃন্দ, শিক্ষক, স্থানীয় ইউপি সদস্যদের উপস্থিতিতে উক্ত কমিটির বিরুদ্ধে মানববন্ধন করে এলাকাবাসী।

উক্ত মানববন্ধনেই জানা যায়, প্রধান শিক্ষক অর্থের বিনিময়ে কাহারো সাথে আলোচনা ছাড়াই জামাত নেতাকে সভাপতি বানানোর জন্য একটি সিন্ডিকেট তৈরি করে।

পক্ষান্তরে অ্যাঢোক কমিটি গঠন করার জন্য পরবর্তীতে কোন কিছুর তোয়াক্কা না করেই স্কুল পরিচালনা কমিটি গঠনের নিমিত্তে তিন সদস্যের একটি নামীয় তালিকা শিক্ষা বোর্ডে প্রেরণ করেন এর মধ্যে প্রথম নম্বরে রয়েছেন স্থানীয় জামাত নেতা মনসুর আলী পীরের নাম।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, স্থানীয় এই জামায়াত নেতার বিরুদ্ধে বিভিন্ন জামাত সংগঠনে চাঁদা প্রদান করা ও পূর্ববর্তী সময়ে সভাপতি থাকাকালীন সময়ে নিয়োগ বাণিজ্যসহ নানা অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই তার তৎকালীন সময়ের নিয়োগকৃত এক শিক্ষকের নাম ঘষামাজা ও ডিজির প্রতিনিধি স্বাক্ষর পর্যন্ত ঘষামাজা করে নিয়োগ প্রদান করায় শিক্ষা বোর্ডে লিখিত আবেদন প্রেক্ষিতে তৎকালীন সভাপতি তথা এই মুনসুর পীরের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি তৈরি হয়েছে এবং তদন্ত প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

স্থানীয় একাধিক আওয়ামী লীগ নেতা সহ অনেকের অভিযোগ এই বিতর্কিত মনসুর আলী পীর উক্ত প্রতিষ্ঠানের সভাপতি হলে বর্তমান সরকারের ভাবমূর্তি চরমভাবে ক্ষুণ্ন হবে তাছাড়াও অভিযোগ করে বলেন বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার সততা ও নিষ্ঠার সাথে দেশ পরিচালনা করে যাচ্ছে বিধায় পর পর তৃতীয় মেয়াদে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় রয়েছে। এহেন পরিস্থিতিতে উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সভাপতি জামাত বা অন্য পন্থী হয় তাহলে বর্তমান সরকারের ভাবমূর্তি এবং অর্জন অনেকটাই নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই অতি শীঘ্রই বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির ইন্দ্রজাল ভেদ করে যোগ্য ব্যক্তিকে সভাপতির আসনে দেখতে চাই এলাকার সচেতন মহল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো খবর