রামুর গর্জনিয়াতে WFP এর খাদ্য সহায়তা নিয়ে নয় – ছয়, এমপি কমলের দৃষ্টি আকর্ষণ।রামুর গর্জনিয়াতে WFP এর খাদ্য সহায়তা নিয়ে নয় – ছয়, এমপি কমলের দৃষ্টি আকর্ষণ। – দৈনিক গণ আওযাজ
শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন

রামুর গর্জনিয়াতে WFP এর খাদ্য সহায়তা নিয়ে নয় – ছয়, এমপি কমলের দৃষ্টি আকর্ষণ।

নিজস্ব প্রতিবেদক/১৩৮বার পড়া হয়েছে
আপডেট :মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০২০

রামুর গর্জনিয়া ইউনিয়নে WFP এর খাদ্য সহায়তা এসেছে হাজারের অধিক ব্যক্তিদেরকে জন্য। দলীয় ব্যক্তিদের থেকে অসহায় মাত্র ৮০ জনের জন্য মাননীয় এমপি মহোদয় নিজেই সুপারিশ করেছিলেন । সেখানেও আজ নয় – ছয়ের অভিযোগ। লিস্ট থেকে গর্জনিয়ার বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক অসহায় মাত্র ৮০ জন ব্যক্তিদের থেকে ৬০ জনকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছে। অনেকেই বলছেন মাননীয় এমপি মহোদয়ের সুপারিশকে অবমূল্যায়ন করলো।

কোভিড- ১৯ সংক্রমন প্রতিরোধে মাদার অব হিউম্যানিটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উপহার WFP এর সহযোগীতায় অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা ৬০ কেজি চাউল ১ বক্স বিস্কুট রামুর প্রতিটি ইউনিয়নে দেওয়া প্রায় শেষ পর্যায়। কোন ইউনিয়নে তেমন অনিয়ম দেখা মিলেনি। কিন্তু আজ গর্জনিয়া ইউনিয়নের অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে এই এলাকার জনপ্রতিনিধিরা মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি মহোদয়ের নির্দেশনা মতো চলে না। অর্থাৎ মানবতার পক্ষে কাজ করে না।

গর্জনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি হাফেজ আহমদ বলেন গর্জনিয়া ইউনিয়নের গত নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকা ব্যক্তির পক্ষে কাজ করতে ইচ্ছুক ছিলোনা ইউনিয়ন ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা। কিন্তু মাননীয় সাংসদ জনাব আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি মহোদয়ের নির্দেশে সবাই তার(চেয়ারম্যানের) পক্ষে কাজ করিয়েছিলেন। তিনি জয় হওয়ার পর থেকে তার বিপক্ষের ব্যক্তি গুলোকে খুঁজে খুঁজে সরকারি কোন সুবিধায় স্থান দিচ্ছে না। কিন্তু তার কিছু রিজার্ভ ব্যক্তিদেরকে সকল সুবিধা ডাবলের উপর ডাবল করে দিচ্ছে। তাদের মধ্যে বেশিরভাগই আওয়ামীলীগ রাজনীতির বিপক্ষের লোক। আজ স্বার্থহীন ভালবাসা নিয়ে যেসব কর্মী মাননীয় এমপি মহোদয়ের পক্ষে স্লোগান দিতে দিতে ক্লান্ত হয়ে পড়তেন তাদেরকে লাথি মারার মতো কাজ করে চলেছে প্রতিটি সরকারি সহায়তায় । WFP এর খাদ্য সহায়তার জন্য কিছু অসহায় কর্মীদের জন্য সুপারিশ করেছিলে মাননীয় এমপি মহোদয়। আজ মাননীয় এমপি মহোদয়ের সুপারিশকে অবমূল্যায়ন করলো। এইটা প্রমাণ করে দিলো বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক ব্যক্তি তার পছন্দের না। বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক ব্যক্তিদেরকে পছন্দ করেনা এসব লোক কেমনে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীন দেশে বসবাস করতে পারে? দল করি কিন্তু চেয়ারম্যানের ও মেম্বারদের দালালি করিনা এইটাই আজ আমাদের দোষ।

গর্জনিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান বলেন মাননীয় এমপি মহোদয়ের একনিষ্ঠ কর্মী যারা এই মহা দুর্যোগ মূহুর্তে দুমুঠো খাবার জোগাড় করতে অক্ষম তাদের জন্য মাননীয় এমপি মহোদয় সুপারিশ করেছিলেন। তাদেরকে যেন WFP এর খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। কিন্তু আজ মাননীয় এমপি মহোদয়ের সুপারিশের মূল্য দিলো না। সুপারিশ কৃতদের থেকে বেশিরভাগই বাদ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু একইপরিবারের মা, স্ত্রী, স্বামী, ভাইয়ের স্ত্রী, ভাই এইভাবে সাত থেকে আট জনের দেখা মিলে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক সৈনিক মাননীয় এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল মহোদয়ের একনিষ্ঠ কর্মীদেরকে অর্থাৎ যাদের জন্য মাননীয় এমপি মহোদয় নিজেই সুপারিশ করেছিলেন ঐসব অসহায় ব্যক্তিদেরকে যে বা যারা সরাসরি সহায়তা থেকে বারবার বাদ দিচ্ছে তাদের জন্য আইনত ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য দাবী জানাচ্ছি।

গর্জনিয়ার কিছু ছাত্রলীগ কর্মীদের ফেইসবুক স্ট্যাটাস হুবহু তুলে ধরা হলো। এক ছাত্রলীগ কর্মী লিখেন – রাজপথে সংসদ উপজেলা নির্বাচনে জীবনের রিস্ক নিয়ে নিজের সবটুকু বিসর্জন দিয়ে কাজ করেছে গর্জনিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা। কিন্তু সুসময়ে সুবিধা পাই সদ্য ফুল দিয়ে যোগ দেয়া সুবিধাবাদী ব্যক্তিরা। এসব দেখে হৃদয়ে রক্তক্ষরন হচ্ছে জয় বাংলা।

আরেকজন কর্মী মাননীয় এমপি মহোদয়ের দৃষ্টি আর্কষন করে লিখেছেন। তার লিখাটি হুবহু তুলে ধরা হলো:মাননীয় সংসদ আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি, গর্জনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ ছাত্রলীগ আপনার দুঃসময়ের ভ্যানগার্ড হিসেবে আপনার রাজপথকে মসৃন রাখতে সর্বদা প্রস্তুত। প্রিয় নেতা আমরা স্হানীয় সকল সুযোগ সুবিধা বারবার বাদ পড়াই তৃনমুলে ৯ ওয়ার্ডে সাধারণ কর্মীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। WFP বরাদ্দে আপনার নিজ হাতের গর্জনিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ যুবলীগের ৮০ জনের সুপারিশকৃত লিস্ট থেকে অন্তত ৬০ জনকে বাদ দেয়া হয়েছে। স্বাধীনতা বিরোধীরা যখন ত্রান পাই নেত্রীর বরাদ্দ পাই হাইব্রিডদের সুপারিশে। দুঃসময় আর সুসময়ে আপনার পাশে থাকা যুবলীগ ছাত্রলীগ আজ বড় অসহায় স্বাধীনতা বিরোধীদের চক্রান্তে। প্রিয় নেতা আপনার কাছে আমরা এর সুস্থ বিচার চাই। এইভাবে আরো অনেকের বক্তব্য তুলে ধরা সম্ভব হয় নাই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো খবর